কক্সবাজার সকাল ৯:৩৩ ২২ অক্টোবর, ২০২১ | ৬ কার্তিক, ১৪২৮
  শিরোনাম
মুহিবুল্লাহ হত্যার বিষয়টি মাঠ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ আছে: পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গাদের আমরা দাওয়াত করে আনিনি-পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজ পোর্টাল চালু করতে আগেই নিবন্ধন নিতে হবে : তথ্যমন্ত্রী সোনাদিয়ায় নৌক ডুবিঃ ৯৯৯ তে কলে ১৪ পর্যটক উদ্ধার, নিখোঁজ ১ হোয়াইক্যংয়ে স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পুন:নির্বাচনে শংকা, ৯ প্রস্তাবনা রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় বিদেশি সংস্থার সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের ৩ উপজেলার ২১ ইউপিতে ভোট ১১ নভেম্বর মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিবুল্লাহ নিহত ইউপি নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট ১১ নভেম্বর ২০২১ সালেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী

মেডিক্যালের শিক্ষার্থীরা সশরীর ক্লাস শুরু ১৩ সেপ্টেম্বর: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

হিমছড়ি ডেস্কঃ

মেডিক্যাল কলেজসহ চিকিৎসাশিক্ষার কার্যক্রম সশরীরে শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ক্লাস শুরুর সম্ভাব্য তারিখ ঠিক করা হয়েছে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর।

বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সব ধরনের সুরক্ষা নিয়ে ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের কয়েকশ’ মেডিক্যাল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বশরীরে ক্লাস খোলা হবে।

এ সময় সবাইকে মাস্ক পড়তে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। তবে পরিস্থিতি দেখে পর্যায়ক্রমে সব কিছু খোলা হবে।
তিনি বলেন, আমরা বলতে চাই—আমাদের যে বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সরকারি-বেসরসরকারি মিলিয়ে মেডিক্যাল কলেজ, নার্সিংসহ কয়েকশ’ প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া করছে আনুমানিক দেড় লাখের মতো ছাত্র-ছাত্রী। তাদের লেখাখাপড়া সশরীরে বন্ধ ছিল প্রায় দুই বছর।

তবে অনলাইনে ক্লাস চলছে। গত ফেব্রুয়ারি-মার্চ থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম বন্ধ করতে হয়েছে। লকডাউন দিতে হয়েছে কোভিড নিয়ন্ত্রণের জন্য। সেই সাথে আমাদের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে হয়েছে। মেডিক্যাল শিক্ষা বিভিন্ন ক্লাস বন্ধ রাখতে হয়েছে। অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম বজায় রাখতে চেষ্টা করেছি।
জাহিদ মালেক বলেন, আমাদের দেড় লাখ শিক্ষার্থী মেডিক্যাল, নার্সিংয়ে আছে। তাদের রোগীর কাছে যেতে হবে। নইলে শিক্ষা অপূর্ণ রয়ে যাবে। সে পরিপূর্ণ শিক্ষা পাবে না। আমাদের টেকনিক্যাল কমিটি, ভিসি মহোদয়রা, মন্ত্রণালয়ের সচিব, ডিজিরা—সবার মতামত নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমাদের ফিজিক্যালি ক্লাস শুরু করা দরকার। না হলে অনেক বড় গ্যাপ পড়ে যাবে। নইলে আমরা ইন্টার্ন ডাক্তার পাব না। সে সব চিন্তা করে আমরা প্রথম, দ্বিতীয় এবং পঞ্চম বর্ষের ক্লাস সরাসরি নিতে যাচ্ছি। শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়েছি। তাদের সুরক্ষিত করার চেস্টা করেছি। ক্লাসে গেলে মাস্ক পড়তে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

তিনি বলেন, প্রথম, দ্বিতীয়, পঞ্চম বর্ষের প্র্যাকটিক্যালে জড়িত শিক্ষার্থীদের জন্য আগে ক্লাস খোলা হবে। পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষাবর্ষের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে। সব নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনো সমস্যা হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা করব। রোগীর কাছে শিক্ষার্থীদের যেতে হবে। তাদের যথাযথ নিরাপত্তার সাথে রোগীর কাছে নিতে হবে। সেখান থেকে তারা চিকিৎসা দেওয়া শিখবে। সেজন্য নন কোভিড রোগীদের কাছে নেবো। পর্যায়ক্রমে কোভিড রোগীদের কাছেও নেবো। এটি আমাদের আজকের সিদ্ধান্ত।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ডিজি সচিবরা জানিয়েছেন এ মাসের ১৩ তারিখ থেকে তারা ক্লাস শুরু করতে পারবেন। এটি তাদের আনুমানিক সময়। এটি আমাদের বড় একটি সিদ্ধান্ত।

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশে কোভিডের জন্য শিক্ষা ব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে এসেছে। আমাদের দেশেও বিভিন্ন কার্যক্রম নিতে হয়েছে। সব মিলিয়ে ৫০ হাজারের অধিক লোক নিয়োগ দিতে হয়েছে। ৪ হাজার ডাক্তার, ৮ হাজার নার্স নিয়োগ দিতে হয়েছে। এ কার্যক্রমগুলো চলমান আছে। ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রমও পুরোদমে চালু আছে।




এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Developed By e2soft Technology

Share via
Copy link
Powered by Social Snap