কক্সবাজার রাত ৩:৪৫ ২৭ অক্টোবর, ২০২১ | ১১ কার্তিক, ১৪২৮
  শিরোনাম
মুহিবুল্লাহ হত্যার বিষয়টি মাঠ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ আছে: পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গাদের আমরা দাওয়াত করে আনিনি-পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজ পোর্টাল চালু করতে আগেই নিবন্ধন নিতে হবে : তথ্যমন্ত্রী সোনাদিয়ায় নৌক ডুবিঃ ৯৯৯ তে কলে ১৪ পর্যটক উদ্ধার, নিখোঁজ ১ হোয়াইক্যংয়ে স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পুন:নির্বাচনে শংকা, ৯ প্রস্তাবনা রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় বিদেশি সংস্থার সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের ৩ উপজেলার ২১ ইউপিতে ভোট ১১ নভেম্বর মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিবুল্লাহ নিহত ইউপি নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট ১১ নভেম্বর ২০২১ সালেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী

কাবুল বিমানবন্দরে নিহত ৫


বিমান ওঠার লড়াই আফগানদের – ছবি সংগৃহীত

হিমছড়ি ডেস্কঃ 

কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গুলিবর্ষণে অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছে। জোর করে বিমান ওঠার চেষ্টাকার লোকজনকে থামানোর জন্য গুলি করা হয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃতি দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, তিনি একটি গাড়িতে করে পাঁচটি লাশ নিয়ে যেতে দেখেছেন। আরেক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, নিহতরা গুলিতে না পায়ের চাপায় মারা গেছে, তা তিনি নিশ্চিত নন।

বিমানবন্দরের দায়িত্বে থাকা মার্কিন সৈন্যরা এর আগে জনতাকে ছত্রভঙ্গ করার জন্য গুলিবর্ষণ করেছে বলে এক মার্কিন কর্মকর্তা জানান।

কাবুল থেকে সব ধরনের বাণিজ্যিক ফ্লাইট বন্ধ

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সবধরনের বাণিজ্যিক ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের কাছে পাঠানো এক বার্তায় এই তথ্য জানান।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ তাদের বার্তায় জানায়, ‘লুটপাট ও চুরি ঠেকাতে হামিদ কারজাই বিমানবন্দরে কোনো বাণিজ্যিক ফ্লাইট চলছে না।’

এর আগে তালেবানের কাবুল দখলের পর বিভিন্ন দেশ তাদের কূটনীতিকদের আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিচ্ছে। একইসাথে বিপুল বেসামরিক আফগানও তালেবানের নিয়ন্ত্রণের বাইরে যুক্তরাষ্ট্রসহ ভিন্ন দেশগুলোতে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। আফগানিস্তান ছাড়ার জন্য কাবুলের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভিড় করছেন তারা।

দীর্ঘ দুই দশক আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের পর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে কাতারের দোহায় এক শান্তিচুক্তির মাধ্যমে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার করতে সম্মত হয় যুক্তরাষ্ট্র। এর বিপরীতে আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় অংশ নিতে তালেবান সম্মত হয়।

এই বছরের মে মাসে সৈন্য প্রত্যাহারের কথা থাকলেও মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এপ্রিলে এক ঘোষণায় ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সৈন্য প্রত্যাহারের কথা জানান। পরে জুলাই সময়সীমা আরো কমিয়ে এনে ৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন তিনি।

মার্কিনিদের সাথে চুক্তি অনুসারে আফগানিস্তানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সরকারের সাথে তালেবানের সমঝোতায় আসার কথা থাকলে কোনো সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি দুই পক্ষ। সমঝোতায় না পৌঁছানোর জেরে তালেবান আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণে অভিযান শুরু করে।

৬ আগস্ট প্রথম প্রাদেশিক রাজধানী হিসেবে দক্ষিণাঞ্চলীয় নিমরোজ প্রদেশের রাজধানী যারানজ দখল করে তারা। যারানজ নিয়ন্ত্রণে নেয়ার ১০ দিনের মাথায় কাবুল দখল করে তালেবান যোদ্ধারা।

সূত্র : আল জাজিরা




Developed By e2soft Technology

Share via
Copy link
Powered by Social Snap