কক্সবাজার রাত ৪:৩০ ২৭ অক্টোবর, ২০২১ | ১১ কার্তিক, ১৪২৮
  শিরোনাম
মুহিবুল্লাহ হত্যার বিষয়টি মাঠ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ আছে: পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গাদের আমরা দাওয়াত করে আনিনি-পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজ পোর্টাল চালু করতে আগেই নিবন্ধন নিতে হবে : তথ্যমন্ত্রী সোনাদিয়ায় নৌক ডুবিঃ ৯৯৯ তে কলে ১৪ পর্যটক উদ্ধার, নিখোঁজ ১ হোয়াইক্যংয়ে স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পুন:নির্বাচনে শংকা, ৯ প্রস্তাবনা রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় বিদেশি সংস্থার সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের ৩ উপজেলার ২১ ইউপিতে ভোট ১১ নভেম্বর মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিবুল্লাহ নিহত ইউপি নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট ১১ নভেম্বর ২০২১ সালেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী

পেকুয়ায় ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে ছাত্রীর আত্মহত্যা

প্রতিনিধি পেকুয়াঃ

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছে এক মাদ্রাসা ছাত্রী। রেখা মণি নামের ওই ছাত্রী গতকাল ২৩ জুলাই (শুক্রবার) রাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পরে ধর্ষণের অপমান সইতে না পেরে ঘটনার পর দিন ২৪ জুলাই (শনিবার) ভোর রাতেই সে কীটনাশক পান করে নিজ বাড়িতেই আত্মহত্যা করে। পরে সকালে পেকুয়া থানার পুলিশের এস আইন নাজমুলের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। রেখা মনি (১৭) উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের হাজী পাড়া গ্রামের আইয়ুব আলীর মেয়ে। স্থানীয় রাজাখালী বহুমুখী বেশারাতুল উলুম ইসলামিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল সে।

স্থানীয় এলাকাবাসীদের সুত্রে জানা গেছে, পেকুয়া উপজেলার রাজাখালীর ইউনিয়নের পাশের ইউনিয়ন বাঁশখালীর ছনুয়া এলাকার মকছুদ আহমদের পুত্র কাসেমের সঙ্গে প্রায় ছয় মাস আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে রেখা মনির। শুক্রবার রাতে রেখা মনির মা-বা পাশের এক আত্মীয়ের বাড়ীতে বেড়াতে যান। এ সুযোগে রাত সাড়ে ১১টার দিকে রেখা মনিকে তার প্রেমিক কাসেমসহ স্থানীয় আরো দুই বখাটে যুবক কৌশলে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে পাশের একটি মাছঘেরের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে ওই প্রেমিক কাসেমসহ ওই দুই বখাটে যুবক পালাক্রমে ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। পরে স্থানীয়রা টের পেয়ে ওই বখাটে যুবকদের ধরে উত্তম মধ্যম দিয়ে রাতেই ছেড়ে দেয় এবং ওই ছাত্রীকে পরিবারের হাতে তুল দেয়।

স্থানীয়রা আরো জানান, রাতে ওই ছাত্রীকে তার পরিবারের সদস্যরা বকাঝকাসহ মারধর করেন। পরে শনিবার ভোর রাতে ওই ছাত্রী অপমানে বিষপানে আত্মহত্যা করে। এদিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত প্রেমিক কাসেম ও তার দুই সহযোগী কখাটে আলমগীর ও রবিউল আলম পলাতক রয়েছে।

পেকুয়া থানার এসআই নাজমুল জানান, প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে সকালে ঘটনাস্থল থেকে ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি নিজেই মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করেছেন। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার জানান, আত্মহত্যার ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা আইয়ুব আলী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ওসি আরো জানান, হাসপাতাল থেকে ময়না তদন্তের রিপোর্ট থানায় আসলে ওই ছাত্রীর মৃত্যুর কারণ বলা যাবে।




এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Developed By e2soft Technology

Share via
Copy link
Powered by Social Snap