কক্সবাজার রাত ২:৩২ ২৭ অক্টোবর, ২০২১ | ১১ কার্তিক, ১৪২৮
  শিরোনাম
মুহিবুল্লাহ হত্যার বিষয়টি মাঠ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ আছে: পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গাদের আমরা দাওয়াত করে আনিনি-পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজ পোর্টাল চালু করতে আগেই নিবন্ধন নিতে হবে : তথ্যমন্ত্রী সোনাদিয়ায় নৌক ডুবিঃ ৯৯৯ তে কলে ১৪ পর্যটক উদ্ধার, নিখোঁজ ১ হোয়াইক্যংয়ে স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পুন:নির্বাচনে শংকা, ৯ প্রস্তাবনা রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় বিদেশি সংস্থার সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের ৩ উপজেলার ২১ ইউপিতে ভোট ১১ নভেম্বর মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিবুল্লাহ নিহত ইউপি নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট ১১ নভেম্বর ২০২১ সালেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী

উখিয়ায় কর্মহীন ২০০ পর্যটনসেবীরা পেল খাদ্য সামগ্রী

উখিয়া প্রতিনিধিঃ
দেশে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সারাদেশে কঠোর লকডাউন চলছে। চলমান লকডাউনে উখিয়ার ইনানী সৈকত জনশূন্য। কর্মহীন হয়ে পড়ে ফটোগ্রাফার, ভাসমান দোকানদার ও বীচবাইক চালক ব্যবসায়ী সহ এখানকার দুই শতাধিক পর্যটনসেবী। উখিয়া উপজেলা প্রশাসন তাদেরকে পৌছে দিল প্রধানমন্ত্রীর উপহারের খাদ্য সামগ্রী।

শনিবার (১০ জুলাই) সকালে,১১টায় ইনানী হ্যালিপ্যাড মাঠে পর্যটন নির্ভর এসব মানুষদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা বিতরণ করেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (উন্নয়ন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) মো. নাসিম আহমেদ।

তিনি বলেন লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া সকল শ্রেণিপেশার মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রয়েছে। কক্সবাজারের যেসব মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে সবার মাঝে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন,লকডাউনে কর্মহীন অবস্থায় থাকা পর্যটন নির্ভর ২০০জন ফটোগ্রাফার, বীচ বাইক চালক ও ভাসমান দোকানদারদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। `মানবিক বিবেচনায় তালিকাভিত্তিক কর্মহীনদের পাশাপাশি ৩৩৩ এ কল করেও ইতিমধ্যে তিন শতাধিক মানুষ পেয়েছেন খাদ্য সহায়তা। একদিকে বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন অন্যদিকে কর্মহীন মানুষদের অন্ন ব্যবস্থা করতেও আমরা সব সময় প্রস্তুত।’

কর্মহীন সরকারি সহায়তা পেয়ে খুশি ইনানী সৈকতের পর্যটনসেবীরা।

সৈকতের ফটোগ্রাফার হেলাল জানান, “পর্যটক না আসার কারণে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের আয়ের পথ বন্ধ, খুব খারাপ সময় যাচ্ছে। এ অবস্থায় সহায়তার প্রয়োজন ছিল, প্রশাসন আমাদের মনে রেখেছে তার জন্য কৃতজ্ঞতা। ”

সৈকত এলাকার দোকানদার কবির বলেন, “মানুষ বিচে আসলে আমাদের পরিবারের পেটে খাবার জুটে, লকডাউনে খুব কষ্টে আছি। সাহায্য করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ। ”

এ সময় উখিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল মামুন সহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।




এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Developed By e2soft Technology

Share via
Copy link
Powered by Social Snap