কক্সবাজার রাত ২:৩৯ ২৭ অক্টোবর, ২০২১ | ১১ কার্তিক, ১৪২৮
  শিরোনাম
মুহিবুল্লাহ হত্যার বিষয়টি মাঠ পর্যায়ের পর্যবেক্ষণ আছে: পররাষ্ট্র সচিব রোহিঙ্গাদের আমরা দাওয়াত করে আনিনি-পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিউজ পোর্টাল চালু করতে আগেই নিবন্ধন নিতে হবে : তথ্যমন্ত্রী সোনাদিয়ায় নৌক ডুবিঃ ৯৯৯ তে কলে ১৪ পর্যটক উদ্ধার, নিখোঁজ ১ হোয়াইক্যংয়ে স্থগিত দুই ভোটকেন্দ্রের পুন:নির্বাচনে শংকা, ৯ প্রস্তাবনা রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যায় বিদেশি সংস্থার সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজারের ৩ উপজেলার ২১ ইউপিতে ভোট ১১ নভেম্বর মুখোশধারী সন্ত্রাসীদের গুলিতে রোহিঙ্গা নেতা মাস্টার মুহিবুল্লাহ নিহত ইউপি নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট ১১ নভেম্বর ২০২১ সালেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী

আলোচিত জয়নাল হত্যা মামলার আসামি অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার, অন্য আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

ইউসুফ বিন হোসাইনঃ

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার শিলখালী ইউনিয়নের সাপেরগাড়া নামক পাহাড়ি এলাকার একটি বসতঘর থেকে অস্ত্রসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তিনি মগনামা ইউনিয়নের আলোচিত জয়নাল আবেদিন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামিও। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে পেকুয়া থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার আসামির নাম আমির হোসেন ওরফে ভুলু (৪০)। তিনি মগনামা ইউনিয়নের মাঝিরপাড়া এলাকার বাসিন্দা আহমদ হোসেনের ছেলে।

গত ২ মে রাত সাড়ে আটটার দিকে মগনামা ইউনিয়নের ফুলতলা স্টেশনে প্রকাশ্যে জয়নাল আবেদিন ও তাঁর বন্ধু আলী আকবরকে এলোপাতাড়ি গুলি করে ও কুপিয়ে গুরতর আহত করে সন্ত্রাসীরা। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে জয়নাল আবেদিন মারা যান। আলী আকবর দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন। এঘটনায় স্থানীয় মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

পেকুয়া থানার পুলিশ জানিয়েছে, মগনামার ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদিন হত্যা মামলার এজাহারনামীয় আসামি আমির হোসেন ভুলু শিলখালীর পাহাড়ি এলাকা সাপেরগাড়ার একটি বসতঘরে অবস্থান করছেন-এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। এসময় আমির হোসেন ভুলুকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর শিয়রের পাশ থেকে (শোয়া অবস্থায় মাথার পাশ থেকে) দেশে তৈরি একটি বন্দুক ও একটি গুলি জব্দ করা হয়েছে।

চকরিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) তফিকুল আলম বলেন, আমির হোসেনকে ব্যবসায়ী জয়নাল আবেদিন হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে নতুন করে পেকুয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হেবজুর রহমান বাদি হয়ে অস্ত্র আইনে আরেকটি মামলা রুজু করেন। মামলাটি তদন্ত করছেন এসআই মিন্নত আলী।

পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, গতকাল বুধবার আমির হোসেনকে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এক আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানি

পুলিশ সূত্র জানায়, ইতিমধ্যে জয়নাল হত্যায় একজন আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। সেই জবানবন্দিতে ওই আসামি বলেছেন, জয়নাল হত্যার ঘটনায় আমির হোসেন ভুলু সরাসরি অংশ নেন। পুলিশ বলছে, আরও রহস্য উদ্ঘাটনে আমির হোসেনকেও পুলিশ হেফাজতে (রিমান্ড) নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছে আবেদন জানানো হবে।

প্রসঙ্গত, জয়নালকে খুনের ঘটনায় ৩ মে তাঁর ছোটভাই আমিরুজ্জামান বাদি হয়ে ৩২জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারে অভিযোগ আনা হয়, আনোয়ারুল আজিম চৌধুরী বাবুল, মো. ইউনুছ চৌধুরী ও সুলতান মোহাম্মদ রিপন চৌধুরীর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় ও ইন্ধনে জয়নালকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মামলাটিতে এ পর্যন্ত এজাহারনামীয় চারজন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে মামলার ৭ নম্বর আসামি মাহমুদুল করিম আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে বলেন, বাবুল, ইউনুছ ও রিপনসহ আরও কয়েকজন মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম, তাঁর বিশ্বস্ত হিসেবে পরিচিত আলী আকবর ও জয়নালকে প্রাণে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন। এজন্য মগনামা ঈদগা মাঠসহ বিভিন্নস্থানে বৈঠক করা হয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক ফুলতলা স্টেশনে জয়নাল ও আলী আকবরকে মেরে ফেলতে গুলি করা হয়। কিন্তু ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান আলী আকবর।

মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম বলেন, ভালোকাজ ও জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্বিত হয়ে মগনামার কিছু দুষ্কৃতিকারী জোট বেঁধেছে। তাঁরা যেকোনোভাবে আমাকে সরাতে চায়। সেটা চেয়ারম্যান পদ থেকে হোক কিংবা দুনিয়া থেকে। তাঁরা জানে না যে, আমি জনগণের জন্য হাসিমুখে জীবন দিতেও প্রস্তুত।

ওয়াসিম বলেন, মামলার এজাহারে যাঁদের নাম এসেছে শুধু তাঁরা নন, গ্রেপ্তার আসামিদের রিমান্ডে নিলে কক্সবাজারের (যাঁদের বাড়ি মগনামা) আরও কিছু রাগববোয়ালের নাম জয়নাল হত্যার কুশীলব হিসেবে বেরিয়ে আসবে। তিনি প্রশাসনের কাছে গ্রেপ্তার আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের দাবি জানিয়েছেন।




এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

Developed By e2soft Technology

Share via
Copy link
Powered by Social Snap