কক্সবাজার ভোর ৫:০৪ ৫ আগস্ট, ২০২১ | ২১ শ্রাবণ, ১৪২৮

মহামারী দীর্ঘায়িত হবে ধনী দেশগুলোর লোভে : ডব্লিওএইচও

ডেস্ক নিউজঃ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও) বিশ্বের অধিকংশ দেশকে করোনার ঝুঁকিতে রেখে ধনী দেশগুলোর বুস্টার ডোজ নেয়ার ভাবনাকে কাণ্ডজ্ঞানহীন লোভ হিসেবে উল্লেখ করে বলেছে, এর ফলে মহামারী দীর্ঘায়িত হবে।

সংস্থাটি বলছে, জেনে-বুঝে যদি বিশ্বের দুর্বলতম দেশগুলোকে মহামারীর দয়ার ওপর ছেড়ে দেয়া হয় তবে পৃথিবী নিজের দিকে লজ্জাভরে ফিরে তাকাবে।

একইসাথে জাতিসঙ্ঘের সংস্থাটি দরিদ্র দেশগুলোর স্বাস্থ্য কর্মী ও বয়স্কদের সম্পূর্ণ টিকাহীন রেখে টিকা উৎপাদনকারীদের বুস্টার তৃতীয় ডোজের অগ্রাধিকার দেয়ার বিষয়কে তীব্রভাবে তিরষ্কার করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে সংস্থা প্রধান টেডরস আধানম গেব্রিয়াসিমকে যে প্রশ্ন সবচেয়ে বেশি সময় শুনতে হয় তা হলো কবে এই মহামারীর অবসান হবে?

এবারো একই প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমরা একে খুব শিগগিরই শেষ করতে পারি। কারণ আমাদের হাতে অস্ত্র আছে। কিন্তু বিশ্বে যোগ্য নেতৃত্বের অভাব রয়েছে।

তিনি বলেন, ভ্যাকসিন জাতীয়তাবাদ এই সঙ্কটকে দীর্ঘায়িত করবে। একে এক শব্দে ব্যাখ্যা করে লোভ বলা যায়।

টেডরস আরো বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশে ভাইরাস সংক্রমণ রেখে বুস্টার ডোজ দেয়ার বিষয়টি হবে হিতে বিপরীত। এর কোনো মানে নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, সংস্থার প্রধান বৈজ্ঞানিক সোমা স্বামীনাথান বলেছেন, ইতোমধ্যে চারটি দেশ বুস্টার ডোজ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে, এবং কিছু দেশ এ উদ্যোগ নেয়ার কথা ভাবছে।

তিনি আরো বলেন, এ ধরনের ডোজের প্রয়োজনীয়তার বিষয়ে বর্তমানে কোনো বৈজ্ঞানিক তথ্য প্রমাণ নেই। এদিকে টেডরস টিকা উৎপাদনকারী মর্ডানা ও ফাইজারকে লক্ষ্য করে বলেন, যে সকল দেশের জনগণ ইতোমধ্যে টিকা পেয়ে তুলনামূলক নিরাপদ রয়েছে তাদের বুস্টার ডোজের বিষয়ে অগ্রাধিকার না দিয়ে বরং কোভ্যাক্সের সরবরাহ চ্যানেলকে জোরদার করা উচিত।

এছাড়া টেডরস গত সপ্তাহ পর্যন্ত পর পর চার সপ্তাহ ধরে বিশ্বে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কথা তুলে ধরে বলেন, বিশ্বের ১০৪টিরও বেশি দেশে করোনার উদ্বেগজনক ডেল্টা ধরণ ছড়িয়ে পড়েছে। আর শিগগিরই এই ধরণটি বিশ্বব্যাপী করোনার মূল স্ট্রেইন হয়ে উঠবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
সূত্র : বাসস




Share via
Copy link
Powered by Social Snap